LOADING

Type to search

স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে ভিক্ষা করা আড়শী আজো কোন সরকারি ভাতা পান নি

জাতীয়

স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে ভিক্ষা করা আড়শী আজো কোন সরকারি ভাতা পান নি

Share

এম.জহিরুল ইসলাম, নান্দাইল(ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি: ময়মনসিংহ জেলার নান্দাইল উপজেলার মোয়াজ্জেমপুর ইউনিয়নের আমোদপুর গ্রামের আড়শী বেগম স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে নিয়ে আজো পর্যন্ত কোন সরকারি অনুদান বা সহায়তা পান নি। ঘটনা টি অবিশ্বাস্য হলেও সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে যে, আড়শী বেগম মানসিক ভারসাম্যহীন, বিধবা,নি:সন্তান, এবং বয়স্ক মহিলা। এতদাসত্বেও আড়শি বেগমের কপালে সরকারি অনুদান নামক সোনার হরিণ জুটে নি। ১৯৭১ সালে যখন পাক হানাদার বাহিনীর সাথে বীর বাঙ্গালীর যুদ্ধের দামামা বেজে উঠেছে তখন বা তার আগে ই আড়শী বেগম এর স্বামী নোয়াখালী জেলার ‘সহাইল্লা মুন্সী’ আড়শী কে তালাক দিয়ে চলে যান নিজ দেশে।তখন থেকে ই আড়শীর জীবন যুদ্ধের সংগ্রাম শুরু। গৃহহীন নি:সন্তান আড়শি যুদ্ধের পর থেকে ভিক্ষার পথ বেছে নিয়ে সংসার চালালেও স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে নিয়ে আজ পর্যন্ত কোন জনপ্রতিনিধি কর্তৃক, সরকারি অনুদান বা সহায়তা পান নি। সকাল হলে ই দেখা যায় বয়সের ভারে নূয়ে পড়া আড়শি পূর্বের অভ্যাসের ন্যায় এখনো ভিক্ষার জন্যে রাস্তায় রাস্তায় বা বাড়ি বাড়ি ঘুরে ফিরে সামান্য কিছু চাল বা টাকা জোগাড় করে সংসার চালাচ্ছেন। স্বাধীনতা যুদ্ধের পর থেকে আজো পর্যন্ত কেন সরকারি অনুদান থেকে আড়শী বেগম বঞ্চিত এই ব্যাপারে কথা বলার জন্যে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও যোগাযোগ করা যায় নি।স্থানীয় নাগরিকদের দাবি মৃত্যুর আগে যেন আড়শী বেগম নিজের একটা ঘর এবং সরকারি অনুদানের মুখ দেখে মৃত্যু বরণ করতে পারেন।

Tags:

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *