LOADING

Type to search

অভয়নগরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বিরুদ্ধে কলেজ ছাত্রীর সংবাদ সম্মেলন

অভয়নগর

অভয়নগরে বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বিরুদ্ধে কলেজ ছাত্রীর সংবাদ সম্মেলন

Share

 

প্রতারক প্রেমিক সজিব হোসেন
স্টাফ রিপোর্টার-অভয়নগরে প্রেমিক কর্তৃক প্রতারিত হয়ে এক কলেজ ছাত্রী বিয়ের দাবিতে সোমবার দুপুরে নওয়াপাড়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে। সংবাদ সম্মেলনে সে লিখিত বক্তব্যে জানায়, বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে শিারীরিক সম্পর্ক হয় তাদের মধ্যে। তাছাড়া পালিয়ে বিয়ে করার জন্য সে তার পিতার ব্যবসার টাকা থেকে ৮০ হাজার টাকা নিয়ে ছিলো। তার প্রেমিক সে টাকাও হাতিয়ে নিয়েছে।
ঘটনার বিবারনে জানা যায়,উপজেলার বুনোরামনগর গ্রামের মিকাইল মোড়লের আকিজ ইনঞ্জিনিয়ারিং কলেজে অধ্যায়নরত পুত্র সজিব হোসেন ইভটিজিং করে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে স্থানীয় নওয়াপাড়া মডেল কলেজে অধ্যায়নরত এক মেধাবী ছাত্রীর সাথে। মেয়ের পিতা জানান, প্রায় দুই বছর যাবৎ গোপনে মন দেওয়া নেওয়ার পাশাপাশি দৈহিক মেলামেশাও করেছে তারা। এক পর্যায়ে তার মেয়ে ওই ছেলেকে বিয়ের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। মেয়ের চাপে পড়ে সজিব হোসেন বিয়েতে রাজি হয়। গত ৮ জানুয়ারী তারা পালিয়ে বিয়ে করবে বলে সিন্ধান্ত নেয়। ওই দিন সকাল ৮টার সময় কলেজে যাওয়ার কথা বলে মেয়ের ব্যাবহৃত স্বর্ণালংকার ও তার পিতার ব্যবসায়ীক গচ্ছিত টাকা থেকে ৮০ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়। নওয়াপাড়া বাজারে এসে সজিব হোসেন ওই মেয়েকে বলে তুমি টাকা পয়সা আমার হাতে তুলে দাও আমি একটা জিনিস কিনে নিয়ে আসি। এই বলে সে টাকা পয়সা নিয়ে উধাও হয়ে যায়। উপায়ান্ত না পেয়ে মেয়ে বাড়ি ফিরে আসে। এর পর সজিব ওই মেয়েকে অজ্ঞত স্থান থেকে ফোনে কয়েক দিন ধরে ফিওে এসে বিয়ে করবে বলে আশ্বস্ত করতে থাকে। এক পর্যায়ে ওই মেয়ে তাকে বিয়ে করার দাবিতে সজিবের বাড়িতে যায়। সে সজিবের পিতা মাতাকে বিষয়টি খুলে বলে। সজিবের পিতা মাতা এ সময়ে মেয়েকে বিয়ের আশ্বাস দিয়ে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়।
বর্তমানে সজিব ও তার পরিবার বিয়েতে রাজি না হওয়ার কারনে ওই মেয়ে মানষিক ভাবে ভেঙ্গে পড়েছে। মেয়ের পিতা আরো জানান.এ পর্যন্ত তার মেয়ে দুইবার আত্মহত্যার চেষ্ট করেছে। তাকে পরিবারের সকলে পাহারা দিয়ে রাখেছে। এঘটনায় স্থানীয় ভাবে সালিশ হয়েছে। কিন্তু ছেলে পলাতক হওয়ায় গ্রামবাসী কোন সিন্ধান্তে আসতে পারেনি। উপায়ান্ত না দেখে মেয়ের পিতা শনিবার সন্ধ্যায় থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম বলেন, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। আশাকরি একটা সুরহ করতে পারবো। এ ব্যাপরে প্রেমিক সজিব পলাতক থাকায় তার সাথে কথা বলা সম্ভাব হয়নি।
সোমবার দুপুরে নওয়াপাড়া প্রেস ক্লাব অডিটোরিয়ামে ভুক্তভোগী কলেজপড়–য়া মেয়েটি ও তার পরিবারের সদস্যরা সংবাদ সম্মেলন করেন। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন প্রতারিত ওই মেয়েটি তার বাবা ও ফুফু ।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *